Logo
Notice :
  • Welcome To Our Website...
News Headline :
গায়েবি মামলায় হয়রানির শিকার মেহেন্দিগঞ্জের এক পরিবার মেহেন্দিগঞ্জে কারামুক্ত আ’লীগ নেতা জামাল মোল্লাকে এলাকায় গণসংবর্ধনা কাশীপুরে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হওয়ার প্রত্যাশা লিটন মোল্লার ১৫০ টাকায় পৌঁছেছে সয়াবিন তেলের লিটার, বন্ধ টিসিবির বিক্রয় কেন্দ্র বরিশালে বিশ্ব মাসিক স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে স্যানিটারী প্যাড বিতরন করেছে লাভ ফর ফ্রেন্ডস প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ তরুণ সাংবাদিক আল আমিন গাজীর শুভ জন্মদিন আজ প্রথম আলো’র জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবীতে উজিরপুর প্রেস ক্লাবের মানববন্ধন উজিরপুর এতিম ছাত্রদের নিয়ে বরিশাল বিভাগীয় অনলাইন সংবাদ পত্র সম্পাদক-প্রকাশক পরিষদের ইফতার মাহফিল বরিশালের নিউ আইকন ফার্নিচারে ঈদ উপলক্ষে চলছে বিশেষ ছাড়।
বরিশালে ফ্লাটে চলছে ‘ ইয়াবা ব্যবসায়ী মুন্নি’ র মিনি পতিতালয় ব্যবসা।

বরিশালে ফ্লাটে চলছে ‘ ইয়াবা ব্যবসায়ী মুন্নি’ র মিনি পতিতালয় ব্যবসা।

নিজস্ব ডেস্ক ★★ বরিশালের কলেজ এভিনিউ ৭ নং গলিতে একটি ফ্লাট বাড়িতে নিচতলার একটি ফ্লাটে কয়েকটি নাবালিকা ও কয়েকজন পেশাদার দেহজিবীদের নিয়ে চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা। নগরীর পলাশপুরের চিন্হিত মাদক ও দেহ ব্যবসায়ী মুন্নি এই ফ্লাট ভাড়া নিয়ে চালাচ্ছে অবৈধভাবে মাদকের পসরা ও কল গার্ল দিয়ে দেহ ব্যবসা। একইসাথে মুন্নির স্বামীর সহযোগীতায় চলে খদ্দেরকে ফিটিং ও ছিনতাইয়ের ঘটনা।

অনুসন্ধানে প্রতিবেদক এর হাতে এর বেশ কয়েকটি অডিও ফোন রেকর্ড আর ঘটনার ভিডিও চিত্র এসেছে। এসব রেকর্ড আর ভিডিও থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী মুন্নি বরিশালের কলেজ এভিনিউ ৭ নং গলিতে হাকিম ম্যানসনের নিচতলার একটি ফ্লাটে চরকাউয়ার একাধিক পতিতাকে মাসিক চুক্তিতে ভাড়া নিয়ে চালায় ‘মিনি পতিতালয় ‘। এদের খদ্দের হিসেবে তরুণ ও বরিশালে যারা স্থানীয় বাসিন্দা নন, এমন লোকজনকে নির্বাচন করে ফিটিং দেয়া হয়। ফোনে এই খদ্দের ঠিক করে মুন্নি নিজেই দামদর করে সব ঠিক করেন। অনৈতিক এ বাণিজ্য চালানোর পাশাপাশি মুন্নি ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে ইয়াবা ও গাজা ব্যবসার অভিযোগও রয়েছে।
সূত্রমতে, মুন্নির সাথে কথা বলে পতিতার কাছে (মুন্নির ঘরে) খদ্দের গেলেই শুরু হয় মুন্নির স্বামীর নাটক। কখনও ডিবি,কখনও সাংবাদিকরা এসেছে বলে পতিতা ও খদ্দেরের অশ্লীল ছবি জোরপূর্বক তুলে তারপর শুরু করে ব্লাকমেইল ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, হাকিম ম্যানসনে প্রায় দু’মাসের বেশী সময় ধরে এ কর্মকাণ্ড চলছে। বিভিন্ন সময় ভিআইপি কায়দায় লোকজন এলেও কেউ হাতেনাতে ধরতে পারেনি। তবে এবার সাংবাদিকদের হাতে এই প্রথম ‘ দেহব্যবসায়ী মুন্নি’ ধরা পড়েছে।

মুন্নি এই মিনি পতিতালয় এর বিষয়ে ফোনে প্রতিবেদককে বলেন ‘ আমি একটি মেয়ে রেখেছি, সে এই খদ্দের আনে। ামি ফোনে শুধু কথা বলেছি।
আর এ বিষয়ে সংবাদ ছাপা হলে তাকে আমি সাত দিনের মধ্যে ‘দেখিয়ে দেব’ ।

এ বিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নুরুল হক বলেন ‘ বরিশালের মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মহোদয় এই অনৈতিক কর্মকাণ্ডকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য ঘোষণা দিয়েছেন। অতএব রেহাই পাওয়ার প্রশ্নই ওঠেনা। আমি দ্রুত ব্যবস্থা নেব।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *